কণ্ঠশিল্পী মিলাকে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

49

মিডিয়ামেইল : কণ্ঠশিল্পী মিলা ইসলাম তার সাবেক স্বামী পারভেজ সানজারির বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন। তবে স্বামীর বিরুদ্ধে করা মামলাতে নিজেই ফাঁসলেন তিনি।

পারভেজ সানজারির বিরুদ্ধে ২০১৭ সালে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মিলা মামলা করেন। গত বছর ওই মামলায় চার্জ গঠন হয়। কিন্তু দেড় বছর ধরে সাক্ষী দিতে আদালতে যান না মিলা। এতে তার বিরুদ্ধে একাধিকবার সমন জারি হয়। তারপরও সাক্ষী দিতে না যাওয়ায় সোমবার গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়। পরোয়ানা জারি করেন মহানগর আদালতের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ৯-এর বিচারক মো. শরিফ উদ্দিন।

এ ব্যাপারে মিলা গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বিষয়টি আমি শুনেছি। এটি নিয়ে আমি আইনজীবীর সঙ্গে আলোচনা করেছি। দ্রুতই আমি হাজিরা দিতে আদালতে যাবো।’

দীর্ঘ দশ বছর প্রেম করার পর ২০১৭ সালের মে মাসে বৈমানিক পারভেজ সানজারিকে বিয়ে করেন মিলা। কিন্তু খুব অল্প দিনের মধ্যেই সংসার জীবনের দ্বন্দ্ব-বিবাদে জড়িয়ে পড়েন তারা। একপর্যায়ে ডিভোর্সের পথে হাটেন মিলা। শারীরিক নির্যাতন ও যৌতুকের অভিযোগে পারভেজের বিরুদ্ধে তিনি মামলাও করেন। সম্প্রতি পারভেজও মিলার নামে হত্যাচেষ্টা মামলা করেছেন।

এদিকে মিলা তার সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে একাধিক নারীর সঙ্গে পরকীয়ার অভিযোগও তোলেন। চলতি বছরে সংবাদ সম্মেলন করে সেসব জানান গায়িকা। সেখানে উঠে আসে অভিনেত্রী নওশীনের নাম। প্রমাণ হিসেবে নওশীন ও পারভেজের মোবাইল ফোনে কথোপকথনের একটি অডিও রেকর্ড বাজিয়ে শোনান মিলা। যদিও নওশীন তার সঙ্গে পারভেজের সম্পর্কের বিষয়টি পুরোপুরি অস্বীকার করেন।